আশাকর্মী, সিভিক ভলেন্টিয়ার ও পুলিশকর্মীদের বেতন সহ বোনাস বাড়িয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

খবর রাজনীতি-সামাজিক

সুরজিৎ আঁকুড়ে: পুলিশ কর্মীদের কাছে বটবৃক্ষ হলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে পুলিশকর্মীদের ওপর প্রবল চাপ ছিল। বেশ খানিকটা দায়িত্ব পুলিশ কর্মী দের উপর দেওয়া হয়েছিল। তাই এবার তাদের কথা ভাবলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। তবে শুধু পুলিশকর্মী নয় বেশ কিছু নীম্নশ্রেণীর সরকারি কর্মীদের জন্যও বেতন ও ছুটি বাড়ানো এবং বোনাসের কথাও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
এর পাশাপাশি নীচুতলার পুলিশকর্মীসহ সিভিক ভলেন্টিয়ার, হোমগার্ড, গ্রামীণ পুলিশ, সিভিল ডিফেন্স ভলেন্টিয়ার, আশাকর্মী এবং অক্সিলিয়ারি ফায়ার অপারেটরদের জন্য বেতন বৃদ্ধি ও বোনাসের ঘোষণাও করলেন মুখ্যমন্ত্রী। জানা গিয়েছে ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম পশ্চিম মেদিনীপুরের ২৪ টি ব্লকের ৫৫০০ জুনিয়র কনস্টেবলের পদোন্নতির খবরও তিনি দিয়েছেন। তিনি আরও বলেছেন, সব জুনিয়র কনস্টেবলদের জঙ্গলমহলের কনস্টেবল পদে স্থানান্তরিত করা হবে। কনস্টেবলরা যে সমস্ত সুবিধা পান এরপর থেকে এই জুনিয়র কনস্টেবলরাও সেই একই সুযোগ সুবিধা পাবে। এমনকি এই সমস্ত কর্মীদের ছুটির পরিমাণও বাড়ানো হচ্ছে। এতদিন পর্যন্ত ১০ দিন করে সিসিএল থাকলেও এখন তা বাড়িয়ে ২৪ দিন করা হয়েছে। এছাড়াও গর্ভবতী মেয়েদের জন্য থাকছে ৬ মাসের মাতৃত্বকালীন ছুটি, থাকছে ৫০ দিনের হাসপাতাল থাকার ছুটি। মুখ্যমন্ত্রী এ সমস্ত কর্মীদের ২ হাজার টাকা করে পুজোর বোনাস দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। দৈনিক ৪৮০ টাকা করে বেতন পাওয়া হোমগার্ডরা এবার থেকে দৈনিক ৫৪৮ টাকা বেতন পাবেন। ফলে মাসে তাদের বেতন বাড়ল ২০৪০ টাকা। এই সমস্ত কর্মীরা ৬০ বছর বয়সে অবসর নেওয়ার সময় তিন লক্ষ টাকা করে অবসর ভাতা পাবেন বলেও জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।