Tuesday , 25 , Jan-2022

inner-page-banner

করোনা পরিস্থিতিতে বন্ধ স্কুল। ক্লাস হচ্ছে অনলাইনে। এই অবস্থায় প্রাথমিকের পড়াশোনা এক প্রকার লাটে উঠেছে। কীভাবে পড়ুয়াদের কাছে শিক্ষার আলো পৌঁছে দেওয়া হবে, কী ভাবে তাদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে, সে বিষয়ে কার্যত কোনও দিশা দেখাতে পারছে না প্রাথমিক স্কুলগুলি। এই পরিস্থিতিতে  আচমকাই কলকাতা সহ রাজ্যের ২১টি জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যানকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল। অপসারণের পিছনে চেয়ারম্যানদের ব্যর্থতাকেই দায়ি করেছে শিক্ষকদের একাংশ৷  মনে করা হচ্ছে অপসারিত চেয়ারম্যানদের কাজে একেবারেই সন্তুষ্ট ছিল না শিক্ষা দফতর। তার জেরেই তাঁদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, শিলিগুড়ি, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদহ,  পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর,  বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদিয়া, হাওড়া ও হুগলির চেয়ারম্যানকে তাঁদের পদ থেকে সরানো হয়েছে। এখন প্রশ্ন এটাই কেন তাঁদের কাজকর্মে অসন্তুষ্ট হল সরকার?জানা গিয়েছে, নিয়োগ ও পরিচালনার ক্ষেত্রে এই চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছিল৷ সেকারণেই হয়তো এই অপসারণ৷ পাশাপাশি অভিযোগ রয়েছে, রাজ্যের সঙ্গে সমণ্বয় না রেখেই তাঁরা নিজের মতো করে কাজ চালাচ্ছিলেন৷ বদলি নিয়েও নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠছিল। একাধিক প্রাথমিক স্কুলে তালা ঝুলিয়ে সেখানকার শিক্ষকদের অন্যত্র বদলি করা হচ্ছিল বলেও অভিযোগ রয়েছে।

You can share this post!

বিজেপি থেকে ইস্তফা দিলেন মুকুল রায়, জল্পনা তুঙ্গে

কলকাতা পুরসভার কোষাগার শূন্য, অনির্দিষ্ট কালের জন্য বেতন পেনশন অনিশ্চিত

author

Sunday Times Kolkata

By Admin

0 Comments

Leave Comments