Wednesday , 03 , Mar-2021

Top Stories
  1. তৃণমূলের দুষ্কৃতিদের কাছে আত্মসমর্পন করেছেন নিমতা থানার আইসি শিবেন্দু ঘোষ, তার মদতেই এলাকায় বেড়েছে দুষ্কৃতিরাজ
  2. কয়লা, গোরু পাচার কাণ্ডে সিবিআইয়ের নজরে রাজ্য ও কলকাতা পুলিশের একাধিক কর্তা, চাপে আইপিএসরা
  3. প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে ভয় পাচ্ছে তৃণমূল, ভাঙনের আশঙ্কা প্রবল তৃণমূলে
  4. বাড়ছে অসন্তোষ, ভোটের আগে ফের বিকাশভবন অভিযান শিক্ষকদের
  5. ভোট ঘোষণা হতেই শক্ত কমিশন, সরিয়ে দেওয়া হল জাভেদ শামিমকে
  6. বাংলায় কড়া কমিশন, রাজ্যে জোড়া বিশেষ পর্যবেক্ষক ও পুলিশ পর্যবেক্ষক
  7. বাংলায় ৮ দফায় ভোট, ২ মে ফল ঘোষণা
  8. প্রতিবেশীকে খুন করে তার হৃৎপিণ্ড রান্না করে পরিবারের লোককে খায়িয়ে ফের খুন দু’জনকে
  9. বাংলার ভোটে বিশেষ নজর কমিশনের, ৮ দফায় হবে ভোট
  10. সমলিঙ্গের বিয়েকে বৈধতা দিল না কেন্দ্রীয় সরকার
inner-page-banner

অনুব্র‍ত মন্ডলের গড়ে এবার তৃণমূলে ভাঙন। পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন তৃণমূল নেতা কাজল সাহা। পাশাপাশি ঘাসফুল ছেড়ে তিনি পদ্মফুলে যোগদান করতে পারেন বলেও সূত্রে খবর। দলীয় বিধায়ক তথা বীরভূমের ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের সভাপতি অভিজিৎ রায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে পদত্যাগ করেছেন পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ কাজল সাহা। সূত্রের খবর, সব ঠিকঠাক থাকলে ২০ ডিসেম্বর দলবল নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন কাজলবাবু।

উল্লেখ্য, রাজনৈতিক কেরিয়ারে শুরু থেকে থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈনিক ছিলেন ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের ঝিকড্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের লোহাজং গ্রামের বাসিন্দা কাজল সাহা। ছাত্রাবস্থায় ছাত্র পরিষদ করতেন। এরপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে যুব কংগ্রেসের ঝিকড্ডা অঞ্চল সভাপতি হন। সেই সময় ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের যুব সভাপতি ছিলেন প্রয়াত আভাস রায়। এরপর ১৯৯৮ সালে তৃণমূল গঠন হওয়ার দিন থেকে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গী ছিলেন কাজল সাহা। ওই বছরই পঞ্চায়েত সমিতির নির্বাচনে জয়ী হন তিনি। এরপর ২০০৮-এ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হন। তারপর ২০১৩ থেকে এখনও পর্যন্ত পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ ছিলেন তিনি। 
তবে বেশ কিছুদিন ধরেই দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছিল কাজল সাহার! এমনটাই বলছেন ঘনিষ্ঠরা। এরপরই এদিন দলীয় বিধায়ক, ব্লক সভাপতি অভিজিৎ রায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভপ্রকাশ করে পূর্ত কর্মাধ্যক্ষের পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। পদত্যাগ পত্র জমা দেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও বিডিওর কাছে। কাজলবাবু বলেন, "এখানে নামেই পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ। কিন্তু কোনও কাজ করতে দেওয়া হয় না। অভিজিৎবাবুই শেষ কথা। তাই দেখলাম শুধু শুধু পদ আঁকড়ে ধরে রেখে লাভ নেই। পদত্যাগ করলাম। তবে এখনো দলীয় পদ থেকে পদত্যাগ করিনি।" যদিও তাঁর ঘনিষ্ঠরা বলছেন, মুখে না বললেও আগামী ২০ ডিসেম্বর অমিত শাহর শান্তিনিকেতন সফরের দিন বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তিনি।

You can share this post!

মোদীর নির্দেশ ধর্ষকদের শাস্তি হোক, যোগীর পুলিশ বলছে ধর্ষণ হয়নি!

সরকারি কর্মচারীদের বাড়তে চলেছে বেতন ও ডিএ, জেনে নিন বিস্তারিত

author

Sunday Times Kolkata

By Admin

0 Comments

Leave Comments