Wednesday , 21 , Apr-2021

Top Stories
  1. কবি শঙ্খ ঘোষের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ বাংলা
  2. লকডাউন করবেন না, রাজ্য সরকারকে কড়া বার্তা মোদীর
  3. বাংলাদেশ থেকে রেমডেসিভির আনতে মোদীর কাছে অনুমতি চাইলো মুখ্যমন্ত্রী
  4. একের পর এক সংক্রমিত কর্মীরা, বন্ধ হচ্ছে লোকাল ট্রেন
  5. শীতলকুচির ডেড বডিগুলো নিয়ে র‍্যালি করব, এসপি, আইসি, পুলিশকে ফাঁসাতে হবে, ফের মমতার কলরেকর্ড ফাঁস
  6. তৃণমূল পেতে পারে ১৮৮ আসন, নতুন সমীক্ষায় স্পষ্ট জনমত
  7. ভোটে প্রচার করতে পারবেন না মুখ্যমন্ত্রী, ব্যান করল নির্বাচন কমিশন
  8. শীতলকুচিতে মাদ্রাসা বুথে বেধরক মারা হয় কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের, মুখ্যমন্ত্রীর উস্কানিতেই পরিকল্পিত হামলা, প্রকাশ্যে এল ছবি
  9. মমতার উস্কানিতেই মৃত্যু হচ্ছে, ঝড়ছে রক্ত, অবিলম্বে বয়কট করুন মুখ্যমন্ত্রীকে
  10. মাদ্রাসা বুথে গুলি চালাল কেন্দ্রীয় বাহিনী, মৃত চার
inner-page-banner

দোলপূর্ণিমা বঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের কাছে এক অতি পুণ্য তিথি। তবে এই পূর্ণিমা আপামর বৈষ্ণবসমাজের কাছে গৌরপূর্ণিমা হিসাবেই বেশি পরিচিত। এই দিনই জগন্নাথ-পত্নী শচীর কোল আলো করে জন্মগ্রহণ করেছিলেন নিমাই, পরবর্তী কালে যিনি হয়েছিলেন শ্রীকৃষ্ণচৈতন্য।
পণ্ডিতেরা বলেন, ১৪৮৬ বঙ্গাব্দের দোলপূর্ণিমা তিথিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্যদেব। তাই এই দিনটিতে নবদ্বীপের বিভিন্ন মন্দিরে যে পুজো হয়, তার মূলে থাকেন পরম প্রেমময় নিমাই। সারা বছর তিনি আপামর ভক্তের কাছে গৌরাঙ্গ মহাপ্রভু বা ‘রাধাকৃষ্ণের মিলিত তনু’ শ্রীচৈতন্য হলেও এই একটি দিনে তিনি কেবলই সদ্যোজাত শিশু নিমাই। প্রতি বছর নবদ্বীপের শ্রীবাস অঙ্গনে সাড়ম্বরে পালিত হয় নদিয়াবিহারীর আবির্ভাবতিথি। করোনা-আবহে এ বারেও তার অন্যথা হচ্ছে না।
এ বছর মহাপ্রভুর ৫৩৬তম আবির্ভাবতিথি। এই দিনটি সকলের কাছে খুবই মাহাত্ম্যপূর্ণ। কথা হচ্ছিল প্রভুপাদ শ্রীবাস গোস্বামীর সঙ্গে। তিনি জানালেন, শ্রীনিত্যানন্দ মহাপ্রভুর দশমপুরুষ প্রভুপাদ শ্রীনবদ্বীপচন্দ্র গোস্বামী বিদ্যারত্ন প্রথম নবদ্বীপে এসে শ্রীবাস অঙ্গনে সেবা পেয়েছিলেন এবং তার পর থেকেই গোস্বামী পরিবারের সদস্যরা এই শ্রীবাস অঙ্গনের সেবার দায়িত্বভার পান। তার আগেও এই শ্রীবাস অঙ্গনে মহাপ্রভুর বিগ্রহ থাকলেও সেবা খুব মলিন ছিল। তার পর প্রভুপাদ শ্রীনবদ্বীপচন্দ্র গোস্বামী এসে নিজের হাতে মহাপ্রভুকে সেবা করেন। নবদ্বীপচন্দ্রের পুত্র প্রভুপাদ শ্রীপ্রতাপচন্দ্র গোস্বামী নবদ্বীপে সোনার গৌরাঙ্গ মন্দির প্রতিষ্ঠা করলেন।
গৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর জন্মের পাঁচশো বছরের বেশি পরেও চৈতন্যধামে দোলের দিন শুধু মহাপ্রভুর আবির্ভাব উৎসব পালিত হয়। এ বছর শ্রীবাস অঙ্গনে শনিবার সন্ধ্যা থেকে শুরু হবে মহোৎসব, চলবে ২ এপ্রিল অবধি। প্রথম দিন সন্ধ্যায় অধিবাস সম্পন্ন হবে। গৌরপূর্ণিমার দিন সকালে নগরকীর্তন নবদ্বীপের বিভিন্ন মন্দির পরিক্রমা করবে, এমনটাই জানালেন প্রভুপাদ শ্রীনিধি গোস্বামী। দোলপূর্ণিমার দিন সন্ধ্যায় আকাশে চাঁদ উঠলেই বেজে উঠবে শতেক শাঁখ, ঘণ্টা, মৃদঙ্গ ইত্যাদি। শুরু হয়ে যাবে মহাপ্রভুর মহাভিষেকপর্ব, পঞ্চামৃত এবং সুগন্ধি অভিষেকবারির মাধ্যমে। এই সময় সব ভক্তই মহাপ্রভুকে গঙ্গাবারির মাধ্যমে অভিষেক করাতে পারেন শ্রীবাস অঙ্গনে। অভিষেকের পর প্রভুকে রাজবেশ পরানো হয়।
পর দিন ধামেশ্বর মহাপ্রভুর মতনই শ্রীবাস অঙ্গনেও পালিত হয় প্রভুর অন্নপ্রাশন। লালচেলিতে শিশু সাজে। ধামেশ্বর মহাপ্রভুর দুর্লভ দর্শনে ভক্তেরা আসেন শিশুর খেলনা নিয়ে। খাদ্য তালিকায় তরকারি থেকে মিষ্টি, সবই থাকে ৫৬ রকম করে।
 শুধুমাত্র শ্রীবাস অঙ্গনেই নয়, গৌরপূর্ণিমার দিন চৈতন্য বিগ্রহের প্রতীক হিসাবে জগন্নাথ মিশ্রের গৃহে পূজিত ‘রাজরাজেশ্বর’ শিলাকে ১০৮ ঘড়া জলে স্নান করানোর পর ষোড়শোপচারে হয় অভিষকপর্ব। গৌরাঙ্গদেবকে পরানো হয় শিশুর চেলি।

You can share this post!

তদন্তে ঝাঁঝ বাড়াচ্ছে সিবিআই, জালে জড়াচ্ছেন অভিষেক

ভোটের আগে সহানুভূতি আদায়ের চেষ্টা মমতার, ব্যঙ্গের ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়

author

Sunday Times Kolkata

By Admin

0 Comments

Leave Comments