আর ১৮ বছরে বিয়ে নয়, নূন্যতম বয়স বাড়াতে চলেছে সরকার!

খবর রাজনীতি-সামাজিক

নিউজ ডেস্ক: এখন ভারতে মেয়েদের বিয়ের নূন্যতম বয়স ১৮ বছর। সেটা খুব শীঘ্রই বেড়ে যেতে পারে। এমনি ইঙ্গিত দিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। গতকাল সংসদে সাধারণ বাজেট পেশ করার সময় অর্থমন্ত্রী বলেন, মহিলাদের বিয়ে ও মাতৃত্বের বয়সের সীমা নিয়ে শীঘ্রই সমীক্ষা করবে সরকার। এ ব্যাপারে বিবেচনা ও সুপারিশের জন্য একটি টাস্ক ফোর্স গঠনের কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। গঠন হবার ছয়মাসের মধ্যে রিপোর্ট জমা করবে টাক্স ফোর্স।

উলেখ্য, ইংরেজ আমলে ১৯২৯-এ সারদা আইনের মাধ্যমে ভারতে মহিলাদের বিয়ের ন্যূনতম বয়সের সীমা স্থির করা হয়েছিল। সেই সময় মহিলাদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ১৪ বছর ও পুরুষদের ন্যূনতম বয়স ১৮ বছর করা হয়েছিল। তারপর ১৯৪০ ও পরে ১৯৭৮ সালে ওই আইনে পরিবর্তন করাহয়। ১৯৭৮ সালে বিয়ের ন্যূনতম বয়স পুরুষদের ক্ষেত্রে ২১ বছর এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে ১৮ বছর করা হয়। ২০০৬ সালে ওই আইনের জায়গায় আসে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইন। যদিও মহিলাদের বয়সের নূন্যতম বয়স ১৮ বছরই রাখা হয়। এবার এই নূন্যতম বয়স সীমাই বাড়াতে পারে মোদি সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *