সারা বিশ্বকে পথ দেখাতে চলেছে যাদবপুরে বাঙালি গবেষক

খবর

প্রিয়া দত্ত: দেশের মধ্যেও যেমন বাংলা এগিয়ে তেমনি বিশ্বএও বাংলা আরো একধাপ এগিয়ে গেল তারই প্রমান পাওয়া গেল আরো একবার। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় গোটা বিশ্বকে নতুন পথ দেখাতে চলেছে। চাঁদের অন্ধকার পৃষ্ঠে চন্দ্রযান-৩ সফট ল্যান্ডিং এর জন্য এবার কাজ শুরু করেছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই বাঙালি গবেষক। এটি প্রথমবার নয় কিন্তু সেখানে থেমে থাকেনি। তারা শুধু চাঁদের নয় অন্য উপগ্রহ, গ্রহ কিভাবে সফট ল্যান্ডিং করা যায় তা নিয়ে চিন্তাভাবনা ব্যস্ত যাদবপুরের গবেষক। এই কাজে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় অমিতাভ গুপ্ত এবং সায়ন চ্যাটার্জি গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তাদের সাহায্য করার জন্য স্নাতক স্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের ইন্টার্ন হিসেবে নেওয়া হয়েছে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক অমিতাভ গুপ্ত বলেন, “ল্যান্ডারের যথাযথ অবতরণ এই গবেষণার মূল উদ্দেশ্য। যেমন কিভাবে ল্যান্ডার ঘুরছে, কিভাবে চলছে, অবতরণের সময় চাঁদের মাধ্যাকর্ষণের টানে পিছিয়ে যেন না আসে এইসবই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন তারা। আরও বলেন, পুরনো সব তথ্য অনুসরণেই সিমিলেশন ডিজাইন করা হচ্ছে। একবার ডিজাইন সম্পূর্ণ হয়ে গেলে সেটা ফেব্রিকেশন করবে।
এই সফলতা অর্জন করলে নিঃসন্দেহে গোটা বিশ্বের কাছে এক নতুন পথ দেখাবে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *