শ্বশুরবাড়ির নির্যাতনে বলি আলিপুরদুয়ারের বাসিন্দা

খবর

অস্মিতা কুন্ডু- আবারও অত্যাচারের স্বীকার হয়ে মৃত্যুর পথ বেছে নিলেন আলিপুরদুয়ারের এক বাসিন্দা। মৃতার নাম পাঁপড়ি সাহা চক্রবর্তী বয়স ৩৪, ম্যাক উইলিয়ালম স্কুলে ইংরাজীর শিক্ষিকা ছিলেন তিনি।

আজ সকাল ৬টায় তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেন প্রতিবেশীরা সঙ্গে পাওয়া যায় একটি সুইসাইড নোটও। সেখানে পরিষ্কার ভাবে তিনি লিখে জানান তার মৃত্যুর জন্য দায়ী তার স্বামী কল্লোল চক্রবর্তী ও শ্বশুর কল্যাণ চক্রবর্তী। প্রতিবেশি ও মৃতার বাপের বাড়ির সূত্রে খবর ২০১২ সালে বিয়ের পর থেকেই অকথ্য অত্যাচার চালাতো শ্বশুরবাড়ির লোকেরা।স্বামী ও তার ছোট্ট কন্যা সন্তানকে নিয়ে আলাদা থাকতে শুরু করলেও সুরাহা হয়নি এই সমস্যার। শুধু তাই নয় বিয়ে করার জন্য হুমকিও দেওয়া হয় পাঁপড়িকে, বলা হয় যদি বিয়ে না করে তাহলে পাঁপড়ির বাবা ও ভাইকে মেরে ফেলবেন তারা। এই সমস্ত তথ্য মৃতা নিজেই জানিয়েছিলেন বলে দাবি করেন মৃতার মা। আপাতত এলাকার পুলিশ এই বিষয়টিতে খুঁটিয়ে তদন্ত চালাচ্ছেন ও দোষীদের শাস্তি দেওয়ার আশ্বাসও দিয়েছেন।