দিব্যি বেঁচে মন্ত্রী, শোকবার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

খবর রাজনীতি-সামাজিক

সুরজিৎ আঁকুড়ে: জানা গিয়েছিল, মন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরা মৃত! এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জল্পনা তুঙ্গে। তাঁর পরিবারকে শ্রদ্ধা জানিয়ে শোকবার্তাও প্রকাশ করে ফেলেছিল রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের একাংশরা। এমনকি মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকেও শোকবার্তা পাঠানো হয়েছিল। অথচ মন্ত্রী দিব্যি বেঁচে রয়েছেন। যারা মন্টুরামের মৃত্যুর খবরে শোকবার্তা প্রকাশ করেছিল, তারা পরে নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি সেই শোকবার্তা তুলে নেয়।
বুধবারের এই ঘটনা প্রবল ভাবে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এখন প্রশ্ন একটাই,রাজ্য প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ এক দপ্তর এমন ভুল করে কী করে? যদিও এ নিয়ে প্রশাসনের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। গত মঙ্গলবার রাতে আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন মন্ত্রী। তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে কাকদ্বীপ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে করোনা পরীক্ষা করা হলে, পরীক্ষার নমুনায় পজিটিভ এসেছে। এর পরই সুন্দরবন উন্নয়নমন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরাকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে তিনি সুস্থই আছেন বলেই জানা গিয়েছে।
তবে নেটিজেনদের কাছে এখন প্রশ্ন, রাজ্যের এক মন্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে কীভাবে ভুয়ো খবর ছড়াল? আর তা নিয়ে শোকবার্তা প্রকাশের আগে কি তথ্য সংস্কৃতি দপ্তর আদৌ খোঁজখবর করেছে? কেউ কেউ তো সরাসরি প্রশ্ন করেছেন, কীভাবে এতটা দায়িত্বজ্ঞানহীন হল দপ্তর? যদিও এ সমস্ত প্রশ্নের জবাব মেলেনি। কেউ কেউ অবশ্য বলেছেন সোশ্যাল সাইটের আর দোষ কি।