করোনায় মৃত্যু বাড়ল, বাস, ট্রেন, মেট্রো নিরাপদ নয়

খবর লাইফস্টাইল

গোটা বিশ্বে নভেল করোনার ত্রাস! ভারতেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শুক্রবার ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫। বৃহস্পতিবার সকালে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬৮৷ একলাফে তা হয়ে যা ৭৩। এখন পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ২।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক থেকে বিভিন্ন রাজ্য ও সংস্থাকে আগাম সর্তকতার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্টেডিয়ামে খেলার দর্শক,  থিয়েটার, সিনেমা হল  সহ কোনওরকম জমায়েতেই নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এবার প্রশ্ন, কলকাতা শহরে এসি মেট্রো, বিশেষ করে এসি বাস , এসি ক্যাব-এ একসঙ্গে প্রচুর মানুষ যাতায়াত করে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস, মেট্রোতে বাইরের হাওয়া প্রবেশ করতে পারে না, ভিতরের হাওয়াও বাইরে বেরতে পারে না।  বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এরফলে এসি যানবাহনের মধ্যে সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকটাই বেশি।

২০১৯ সালের এপ্রিল মাস নাগাদ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস থিয়েটার, মাটির তলার মেট্রো স্টেশন, প্রতিটি জায়গা থেকে ওয়াটার স্যাম্পেল-এর মাধ্যমে বাতাসে ক্ষতিকারক সংক্রামিত জীবাণু মাপেন। সেই পরীক্ষায় তিনি দেখেন, জনসাধারণের ব্যবহৃত শৌচালয়ের বাতাসে যে পরিমাণে জীবানু থাকে, তার প্রায় দ্বিগুণ-এর কাছাকাছি সংক্রামিত জীবাণু  এইসব জায়গাগুলোতে রয়েছে।

তবে,  করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে কলকাতা শহর সোয়াইন ফ্লুর বিষয়টি ভুলেই গিয়েছে। প্রশান্ত বাবুর বক্তব্য ‘ এই মুহূর্তে এমন যানবাহন ব্যবহার করুন যার জানলা খোলা, মুক্ত বাতাস চলাচল করতে পারে। কলকাতা মেট্রো রেল আধিকারিক ইন্দ্রানী বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ‘ মেট্রোতে যাত্রীরা ঢোকেন এবং বেরিয়ে যান । মেট্রো স্টেশনের মধ্যে যাত্রীরা বেশিক্ষণ থাকেন না। এ’ ছাড়া কারওর মধ্যে যদি শ্বাসকষ্ট কিংবা জ্বর-হাঁচির মত লক্ষণ দেখা যায়, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে মাস্ক পরিয়ে, চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। সঙ্গে মেট্রোরেল-এর পক্ষ থেকে সবাইকে সচেতন করা হচ্ছে। সচেতনতার জন্য স্টেশনের মধ্যে মাইকে প্রচার এবং স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি দেখানো হচ্ছে।’

এই আবহাওয়া পরিবর্তনের মরশুমে জ্বর-সর্দি-কাশি-হাঁচি অনেকেরই হয়ে থাকে। প্রথমটায় কেউ-ই তেমন একটা গুরুত্বও দেন না! স্বাস্থ্য দফতরের  নির্দেশিকা অনুযায়ী, একজনকে আরেকজনের থেকে এক মিটার দূরে থাকার উপদেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এসি মেট্রো বা এসি বাসে, একজন যাত্রী আর একজন যাত্রীর থেকে৬ ইঞ্চির কাছাকাছি থাকেন। কাজেই,  সংক্রমনের সম্ভাবনা প্রবল থাকছেই। এই মুহূর্তে কলকাতায় করোনা আতঙ্ক ছাড়া আরও অনেক জীবাণু বাতাসে ঘুরে বেড়াচ্ছে। যারা আধিক্য রয়েছে যাত্রীবাহী শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যান গুলির মধ্যে।

চিকিৎসকরা বলছেন,  করোনা ভাইরাসের চরিত্র এখনও পরিস্কার নয়। তবে ঠাণ্ডা বদ্ধ জায়গাতে  জীবাণু সংক্রমনের সম্ভাবনা বেশি থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *